মোবাইল ইন্টারনেটের গতি বিশ্বে বেড়েছে ৬০ শতাংশ, বাংলাদেশে ১৫ শতাংশ

গত এক বছরে বিশ্বব্যাপী মোবাইল ইন্টারনেটের গতি গড়ে বেড়েছে ৫৯ দশমিক ৫ শতাংশ। একই মেয়াদে বাংলাদেশে মোবাইল ইন্টারনেটের গতি বৃদ্ধির হার ১৫ দশমিক ৩৮ শতাংশ, যা বৈশ্বিক গড়ের প্রায় এক-চতুর্থাংশ। ইন্টারনেটের গতির তুলনামূলক এই চিত্র পাওয়া যায় ওকলার সম্প্রতি প্রকাশিত বৈশ্বিক সূচকে।

সূচকে উপস্থাপিত তথ্য অনুযায়ী, ২০২০ সালের জুলাইয়ে বিশ্বে মোবাইল ইন্টারনেটের ডাউনলোডের গড় গতি ছিল সেকেন্ডে ৩৪ দশমিক ৫২ মেগাবাইট (এমবিপিএস)। চলতি বছরের জুলাইয়ে এসে তা বেড়ে হয়েছে ৫৫ দশমিক শূন্য ৭ এমবিপিএস। আর বাংলাদেশে গত বছরের জুলাইয়ে মোবাইল ইন্টারনেটের ডাউনলোডের গড় গতি ছিল ১০ দশমিক ৯২ এমবিপিএস। এক বছরের ব্যবধানে তা হয়েছে ১২ দশমিক ৬ এমবিপিএস।

মোবাইল ইন্টারনেটে বৈশ্বিক গড়ের চেয়ে বাংলাদেশের গড় খারাপ হলেও এগিয়ে আছে ব্রডব্যান্ড সংযোগের গতি বৃদ্ধির হারে। গত বছরের জুলাইয়ের তুলনায় চলতি বছরের জুলাইয়ে বিশ্বে ব্রডব্যান্ডের সংযোগের গতি বেড়েছে গড়ে ৩১ দশমিক ৮৭ শতাংশ। শুধু বাংলাদেশে এই বৃদ্ধির হার ৪২ দশমিক ৫৯ শতাংশ।

ওকলার মোবাইল ইন্টারনেটের গতির সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান বরাবরই শেষের দিকে। জুনের মতো জুলাইয়েও বাংলাদেশ ছিল ১৩৫ নম্বরে। তবে জুনের প্রতিবেদনে ১৩৭টি দেশের মধ্যে ১৩৫তম ছিল, আর জুলাইয়ে ছিল ১৩৯টি দেশের মধ্যে।

ওকলার প্রতিবেদনে বিশ্বের নানা দেশের গড় ইন্টারনেট গতির তুলনামূলক চিত্র তুলে ধরা হয়। এক মাসের তথ্য বিশ্লেষণ করে পরবর্তী মাসের মাঝামাঝি প্রতিবেদনে তা প্রকাশ করে তারা। জুলাইয়ে প্রকাশিত সর্বশেষ প্রতিবেদনে দেখা যায়, বাংলাদেশে মোবাইল ইন্টারনেটের গড় গতি ছিল ১২ দশমিক ৬ এমবিপিএস। আর বৈশ্বিক গড় গতি ছিল ৫৫ এমবিপিএস।

তথ্য সুত্রঃ প্রথম আলো।

;