করোনাকালেও অস্ত্রের বাজার রমরমা


করোনা মহামারিতে বিপর্যস্ত সারা বিশ্ব। অর্থনীতিও ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত। কিন্তু এর মধ্যেও অস্ত্রের বাজার রমরমা। বিশ্বজুড়ে অস্ত্র তৈরির প্রতিষ্ঠানগুলো গত পাঁচ বছরের মতো গত বছরও রেকর্ড পরিমাণ আয় করেছে।

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়েছে, এ–সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন আজ সোমবার প্রকাশ করেছে সুইডেনের স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউট (এসআইপিআরআই)। এতে বলা হয়েছে, এ মহামারিকালেও বিভিন্ন দেশের সরকার অস্ত্র কিনেছে। এ ছাড়া অস্ত্র কারখানাকে সাহায্য করতে বিভিন্ন দেশে আইন পাস করা হয়েছে।

এসআইপিআরআইয়ের এ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বজুড়ে প্রায় ১০০টি অস্ত্র নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের লাভ বেড়েছে ১ দশমিক ৩ শতাংশ। অস্ত্র বিক্রি হয়েছে ৫৩ হাজার ১০০ কোটি মার্কিন ডলারের। কিন্তু এর বিপরীতে বৈশ্বিক অর্থনীতি সংকুচিত হয়েছে ৩ শতাংশ।

এ প্রসঙ্গে এসআইপিআরআইয়ের গবেষক আলেকজান্দ্রা মার্কস্টেইনার বলেন, করোনাকালে অভিবাসন বেড়েছে। এ প্রভাব মোকাবিলায় অস্ত্র কারখানাগুলোকে বেশি অর্থ দিচ্ছে বিভিন্ন দেশের সরকার। এ ছাড়া বিশ্বজুড়ে সামরিক খরচ বেড়েছে।

অস্ত্র বিক্রির শীর্ষে থাকা পাঁচটি প্রতিষ্ঠান যুক্তরাষ্ট্রের। দেশটির প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে রয়েছে লকহিড-মার্টিন। তারা এক বছরে অস্ত্র বিক্রি করেছে ৫ হাজার ৮২০ কোটি ডলারের। এ প্রতিষ্ঠান যে অস্ত্রগুলো বিক্রি করে, সেগুলোর মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র ও এফ-৩৫ ফাইটার জেট। এরপরই রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের বিএই। ইউরোপের প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে এটি সবচেয়ে বেশি অস্ত্র বিক্রি করেছে। এরপরই রয়েছে চীনের তিনটি প্রতিষ্ঠান।

শীর্ষ ১০০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে থাকা চীনের প্রতিষ্ঠানগুলো অস্ত্র বিক্রি করেছে ৬ হাজার ৬০০ কোটি ডলারের। ২০১৯ সালের তুলনায় চীনের অস্ত্র বিক্রি বেড়েছে দেড় শতাংশ।

তথ্য সুত্রঃ প্রথম আলো। 

;