অরেগনে বাড়ছে দাবানল, সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে বাসিন্দাদের

যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিমাঞ্চল ও কানাডায় দাবদাহ চলছে। এই পরিস্থিতিতে গতকাল রোববার থেকে যুক্তরাষ্ট্রের অরেগন অঙ্গরাজ্যে বেড়েছে দাবানল। ক্ষয়ক্ষতির হাত থেকে বাঁচাতে সেখানের বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ।
 বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রে এই মুহূর্তে ৮০টি দাবানল সক্রিয় রয়েছে। এক রাতের ব্যবধানেই আগুন আরও ১৬ হাজার একর জমিতে ছড়িয়েছে। এখন আগুনে পুড়ছে ২ লাখ ৯০ হাজার একর জমি। এসব এলাকার আরও ২ হাজার বাসিন্দাকে নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

স্যাটেলাইট থেকে তোলা যুক্তরাষ্ট্রের আবহাওয়া দপ্তরের প্রকাশিত ছবিতে দেখা যায়, অরেগনের দক্ষিণাঞ্চলে দাবানল থেকে ধোঁয়ার কুণ্ডলী কানাডার দিকে যাচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে আবহাওয়া শুষ্ক হয়ে পড়েছে। এই শুষ্ক আবহাওয়ার কারণে আগুন আরও সহজে ছড়িয়ে পড়ছে।

এদিকে ঝোড়ো বাতাস এবং বজ্রপাতের কারণে দাবানল আরও বিস্তৃত হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের লেক তাহো এলাকায় দাবানলের জন্য বজ্রপাতকে দায়ী করেছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। সেখানকার ২০ হাজার একরের বেশি এলাকায় আগুন ছড়িয়ে পড়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইন্টার এজেন্সি ফায়ার সেন্টারের (এনআইএফসি) তথ্য অনুযায়ী, দেশটির পশ্চিমাঞ্চলের অঙ্গরাজ্যগুলোয় প্রায় ২০ হাজার অগ্নিনির্বাপণ কর্মী এবং উদ্ধারকর্মী কাজ করছেন। চলতি বছরে এই অঞ্চলের ২৫ লাখ একর জমি আগুনে পুড়েছে।

আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছেন কানাডার অগ্নিনির্বাপণ বিভাগের কর্মীরাও। দেশটির ব্রিটিশ কলম্বিয়া প্রদেশে নতুন করে আরও ২০টি দাবানলের ঘটনা ঘটেছে। ওন্টারিও প্রদেশে ১৫টি নতুন দাবানল দেখা দিয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। সেখানে অগ্নিনির্বাপণ বিভাগের একজন কর্মী নিহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

তথ্য সুত্রঃ প্রথম আলো।

;